আপডেট : ২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ ১৮:৩৯

মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার লোভে পাকিস্তানকে ধমকাচ্ছেন সৌরভ: মিয়াদাদ

অনলাইন ডেস্ক
মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার লোভে পাকিস্তানকে ধমকাচ্ছেন সৌরভ: মিয়াদাদ

কাশ্মীরের পুলওয়ামায় আত্মঘাতী হামলা নিয়ে ভারতজুড়েই যে পাকিস্তানী হাওয়া বইছিল তাতে যোগ দিয়েছিলেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক ক্রিকেটার সৌরভ গাঙ্গুলি। তিনি এক টেলিভিশন সাক্ষাতকারে জানিয়েছিলেন, ১০ দলের টুর্নামেন্ট বিশ্বকাপ। যেখানে প্রতিটি দলই একে অন্যের বিরুদ্ধে খেলবে। আমার মনে হয় পাকিস্তানের সাথে ভারতের ম্যাচ খেলা উচিত হবে না।

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে পুরো দেশের যুদ্ধাংদেহী ভাবের প্রতিও সমর্থন জানান তিনি। ওই সাক্ষাতকারে আক্রমণাত্মকভাবে তিনি আরো বলেছিলেন, ‘পুরো দেশ যেভাবে নিজেদের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে, সেটা একদম ঠিক। এমন ঘটনার পরে পাকিস্তানের সাথে দ্বিপাক্ষিক কোনো সিরিজ হওয়ার সম্ভাবনাও নেই। এমন আক্রমণের পর শুধু ক্রিকেট, হকি বা ফুটবল নয়, বরং সমস্ত ধরনের সম্পর্ক ছিন্ন করতে হবে।

সৌরভের এসব কথার জবাবে এবার মুখ খুলেছেন পাকিস্তানের লিজেন্ড জাভেদ মিয়ানদাদ। পাকিস্তানের ডন পত্রিকায় তিনি সৌরভের পাশাপাশি ভারতীয় বোর্ডেরও কড়া সমালোচনা করেন তিনি। সোজা কথায় জানালেন, সৌরভ গাঙ্গুলি এখন মুখ্যমন্ত্রী হতে চায়, তাই সে এরকম কথা বলছে।

সৌরভের বিধ্বংসী কথাবার্তাগুলোর ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয়, আসন্ন দিনে সৌরভ নির্বাচনে লড়তে চায়। অথবা মুখ্যমন্ত্রী হতে চায়। তাই এভাবে দেশের লোকের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাইছে। ভারতের এ ধরনের কথাবার্তায় ব্যস্ত না হয়ে আমাদের নিজেদের ব্যাপারে আরো উন্নতির ব্যবস্থা করা উচিত। পাকিস্তান সবসময় ভারতকে শান্তিপূর্ণ সমাধানের প্রস্তাব দিয়ে আসছে। কিন্তু ভারত সবসময়ই নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া দেখায়।

সৌরভের পাশাপাশি ভারতীয় বোর্ডকেও কথা শুনিয়েছেন মিয়ানদাদ। পাকিস্তানের সাবেক এই বিখ্যাত ক্রিকেটার নিজের দেশের ‘ডন’ পত্রিকায় বলেছেন, ‘আইসিসি ভারতের কথা শুনবে, এরকম কোনো সুযোগই নেই। কারণ আইসিসির সংবিধানেই সাফ বলা রয়েছে, তার সদস্য দেশগুলিকে ইভেন্টে খেলতে দিতে হবে।’

সূত্র: দ্য স্টেটসম্যানস, হিন্দুস্তান টাইমস।

উপরে